ডালিয়ার সম্পূর্ণ পরিচর্যা

Arindam Hait A

ডালিয়া, এক সর্বজন প্রিয় ফুল। অপরূপ লাবণ‍্যে ও বর্ণের প্রাচুর্যে মহিমান্বিত সুন্দর একটি ফুল হল ডালিয়া। এর বৈজ্ঞানিক নাম Dahlia variailis I এ ফুলের আদি বাসস্থান মেক্সিকোর গুয়াতেমালায়।লর্ডবুটি নামের একজন ব‍্যক্তি স্পেন থেকে ডালিয়া ফুল প্রথমে ইংল‍্যান্ডে নিয়ে আসেন। সেই ফুল দেখে সুইডেনের উদ্ভিদতত্ত্ববিদ আন্দ্রিয়াস গুস্তাভ ডাল নিজের নামের অনুকরণে ফুলের নাম রাখেন ডালিয়া।  আর আজ  আমি তোমাদেরকে  বলবো   কিভাবে  সুন্দর করে ডালিয়ার পরিচর্যা  করতে হয় ।

বি:দ্র :– ঘরে বসে যদি তুমি গাছ  ও গাছের  চাহিদা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় পুষ্টিমৌল পেতে চাও, তাহলে 8972774914 হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে যোগাযোগ করে তোমার পছন্দমত গাছ অর্ডার দিতে পারো I শুধুমাত্র ভারতীয়দের জন্যই প্রযোজ্য I

মাটি :- ডালিয়া হালকা দোঁয়াশ মাটি পছন্দ করে অর্থাৎ যে মাটিতে বালির ভাগ বেশী। এর জন‍্য আমাদের লাগবে একভাগ গার্ডেন সয়েল(হাতের কাছে যে ধরণের মাটি আছে),দুভাগ নদীর সাদা বালি(river sand/silver sand/horticultural sand), একভাগ ভার্মিকম্পোস্ট বা একবছরের পুরোনো পচানো গোবর সার বা পাতাপচা সার এবং মাটির ময়েশ্চার ধরে রাখার জন‍্য অর্ধেকভাগ কোকোপিট।

প্রতিস্হাপন পদ্ধতি

গাছ প্রতিস্হাপন করার আগে অবশ‍্যই টবের ড্রেনেজ সিস্টেম করে নিতে হবে I ড্রেনেজ সিস্টেম জানতে হলে নিচের লিংক অনুসরণ করতে হবে।

১) নতুন বাগানিদের জন্য// ড্রেনেজ সিস্টেম

ঠিকমতো ড্রেনেজ সিস্টেম করে নিয়ে টবের মধ‍্যে কিছুটা মাটি দিয়ে গাছটি টবের মাঝবরাবর বসিয়ে বাকী মাটি দিয়ে সম্পূর্ণ ভরাট করতে হবে।মাটি দেওয়ার সময় একটু ঠেসে ঠেসে দিতে হবে যাতে মাটির মধ‍্যে থাকা বাতাস বেরিয়ে যায়। এর ফলে গাছের শিকড় পচে যাওয়ার কোন সম্ভাবনা থাকে না। গাছ প্রতিস্থাপন হয়ে গেলে উক্ত গাছ জল ভালোবাসুক বা নাই ভালোবাসুক ভরপুর জল দিয়ে দিতে হবে।

বি:দ্র: টবে মাটি দেওয়ার সময় অবশ‍্যই খেয়াল রাখতে হবে যাতে টবের ওপরে দুইঞ্চি ফাঁকা জায়গা থাকে।

আলো :- এই গাছ কড়া রোদ খুব ভালোবাসে। তাই যেখানে সাত-আট ঘন্টা রোদ আসে সেখানেই এই গাছ রাখতে হবে। তবে যেখানে খুব জোরে বাতাস বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে সেই জায়গা গুলো এড়িয়ে যাওয়া ভালো। কারণ ডালিয়ার কান্ড খুব নরম হয় তাই ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আর যদি সম্ভব না হয় তবে একটা মোটা স্টিক এর সাহায‍্যে ঠেকনা দিয়ে রাখতে হবে।

জল :- এই গাছ জল খুব বেশী পছন্দ করে না আবার মাটি একেবারে শুকিয়ে যাওয়া ও পছন্দ করে না।তাই জল এমন ভাবে দিতে হবে যাতে সবসময়  মাটির ময়েশ্চার বজায় থাকে।

খাবারের ব্যবস্থাপনা :- ডালিয়া কম নাইট্রোজেন যুক্ত সার পছন্দ করে তাই NPK 5.10.10 বা 10.20.20,  দশ / বারো ইঞ্চি টবের জন‍্য এক চামচ মাসে একবার অথবা পনেরো  দিন পরপর হাফ চামচ করে মাসে দুবার দিতে হবে। সার দেওয়ার আগের দিন মাটি অবশ‍্যই ভিজিয়ে নিতে হবে।

বি:দ্র :-তুমি যদি আমার তৈরী গাছের জন্য বিশেষ পুষ্টিমৌল  ব্যবহার করো তাহলে আর অন্য কোন সারের ব্যবহার করার দরকার পড়বে না I পেতে চাইলে 8972774914 হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে যোগাযোগ করতে পারো I 

ডালিয়ার তরল সার তৈরীর পদ্ধতি :- দুইশ গ্রাম সরিষার খোল বা বাদাম খোল এক লিটার জলে 7 দিন পচাতে হবে। এই মিশ্রন রোজ ভালো করে নাড়িয়ে দিতে হবে। 6 দিনের দিন ওর সাথে 30 গ্রাম ফসফেট ও 20 গ্রাম মিউরেট অফ পটাশ / সালফেট অফ পটাশ মেশাতে হবে। এবার অষ্টম দিনে গাছে দেওয়ার আধঘন্টা আগে ওর সাথে 50 গ্রাম ইউরিয়া ও 10 গ্রাম ম‍্যাগনেসিয়াম সালফেট মেশাতে হবে। আধঘন্টা পর মিশ্রন পুরো ছেঁকে নিয়ে ওর সাথে 15 লিটার জল মেশাতে হবে। এই সার প্রতি দশদিন পরপর জমির গাছ হলে 15-20 টা এবং টবের গাছ হলে 20-30 টা গাছে দেওয়া যেতে পারে।

রোগপোকা নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি :- এই গাছে কেঁচো,শামুক,এফিডস,থ্রিপস এবং পাউডারি মিল ডিউর আক্রমন দেখা যায়।

কেঁচো ও শামুকের জন‍্য প্রতিমাসে এক চামচ থাইমেট টবের মাটিতে দিতে হবে।

এফিডস,থ্রিপস,পাউডারি মিল ডিউ এদের জন‍্য গাছ বসানোর পাঁচদিন পর থেকে যদি নিয়মমাফিক ডাইমেথয়েড 30%কম্পোজিসনের কীটনাশক রোগর/রোগর প্লাস/টাফগর এক লিটার জলে 30ফোঁটা দিয়ে ভালোকরে ঝাঁকিয়ে স্প্রে করলে কোনরকম রোগপোকা আক্রমন করবে না।

ডালিয়ার ভালো ফুল পেতে কিছু জরুরি কথা

  1. গাছের মূল খাদ‍্য হল NPK। এই NPK বিভিন্নভাবে আমরা গাছে ব‍্যবহার করে থাকি। তবে ডালিয়ার জন‍্য যে নাইট্রোজেনের দরকার তার খুব ভালো উৎস হল রক্তসার। এই রক্তসার থেকে যে নাইট্রোজেন পাওয়া যায় তাতে ডালিয়া ডালিয়া অনেক বেশী colourful এবং আকর্ষনীয় হয়ে ওঠে। তাই ডালিয়া থেকে উজ্জ্বল ফুল পেতে রক্তসার ব‍্যবহার করতে হবে। ডালিয়াতে যে সারই ব‍্যবহার করা হোক না কেন তার মধ‍্যে অল্প করে রক্তসার মেশালে খুব ভালো ফল পাওয়া সম্ভব।
  1. জৈব ও রাসায়নিক সারের সংমিশ্রনে যে সুষম খাদ‍্য তৈরী করা হয় সেটা ডালিয়ার জন‍্য খুব ভালো।
  1. ডালিয়াতে যদি বাজারে যে মিক্সড সার পাওয়া যায় সেটা দিতে হয় তবে তার সাথে পটাশ ও ম‍্যাগনেসিয়াম সালফেট মেশাতে হবে। এক টেবিল চামচ মিক্সড সারের সাথে হাফ চামচ ম‍্যাগনেসিয়াম ও হাফ চামচ সালফেট অফ পটাশ / মিউরেট অফ পটাশ মিশিয়ে 8 ইঞ্চি টবের জন‍্য সেখান থেকে দেড় চামচ দিতে হবে।
  1. ডালিয়ার জন‍্য প্রয়োজনীয় ফসফরাসের খুব ভালো উৎস হল সেদ্ধ হাড়গুড়ো। এই সেদ্ধ হাড়গুড়োতে 25-30%একদম বিশুদ্ধ ফসফরাস থাকে। তাই এটা ডালিয়ার জন‍্য খুব ভালো।
  1.  ডালের তরকা তৈরি পদ্ধতিএছাড়া শুধুমাত্র খোলজল এবং একবছরের পুরোনো গোবর সার দিয়ে ও খুব ভালো ডালিয়া করা যায়।

এই হল ডালিয়ার সম্পূর্ণ পরিচর্যা।সুন্দর করে ডালিয়া করতে হলে এই টিপস গুলো অনুসরণ করার অনুরোধ রইল।সবাইকে অনেক ধন‍্যবাদ।🙏🙏🙏


Leave a comment
Your email address will not be published. Required fields are marked *